• বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৭, ৯ ভাদ্র ১৪২৪
  • ||
  • আর্কাইভ

কুখ্যাত মাফিয়া ডন দাউদ হায়দারের ফোন, ফের আলোচনায়

প্রকাশ:  ১২ আগস্ট ২০১৭, ১৪:৩১
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক
প্রিন্ট

পাকিস্তানে বহাল তবিয়তেই রয়েছে কুখ্যাত মাফিয়া ডন দাউদ ইব্রাহিম। নতুন করে এক ইস্যুতে  এই তথ্য সামনে এসেছে।

পাকিস্তানের জাতীয় স্তরের এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ধরা পড়েছে দাউদের কন্ঠস্বর। 

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় 'সিএনএন নিউজ ১৮' টিভি চ্যানেল থেকে সাক্ষাৎকারের জন্য দাউদ ইব্রাহিমের ফোনে ফোন করা হয়। এসময় অপরপ্রান্ত থেকে কথাও বলেন দাউদ ইব্রাহিম। দাউদের ফোন থেকে কথা হয় ১৯ মিনিট। আর ফোনটি রিসিভ করা হয়েছিল পাকিস্তানের করাচি থেকে। সেই গলার আওয়াজ মিলিয়ে দেখছেন ভারতের গোয়েন্দারা। তারা নিশ্চিত, ফোনের অপর প্রান্তে ছিলেন দাউদ স্বয়ং। কারণ সন্দেহজনক সেই কন্ঠস্বর মিলছে দাউদের সঙ্গেই। 

অন্ধকার জগতের বাদশা দাউদকে নিয়ে জল্পনার যেমন শেষ নেই। তেমনই শেষ নেই তদন্তেরও। বিভিন্ন সংবাদ হাওয়ায় ভাসে তাকে নিয়ে। সম্প্রতি জানা যায়, মারণ রোগে আক্রান্ত এই ডন। হয়তো বেঁচেও নেই। কিন্তু সব জল্পনা উড়িয়ে, টেলিফোনের কথোপকথনে স্পষ্ট, শুধু বেঁচে নয়, রমরমিয়ে চলছে ডি কোম্পানি। পাকিস্তান প্রশাসন ও সরকারি মদতে চলছে ডনের কারবার।

এই প্রথম হয়তো দুর্ঘটনাবশতই টেলিফোনে কোনও সংবাদমাধ্যমের সাথে কথা হল দাউদের। রিপোর্ট অনুযায়ী, গোয়েন্দা দপ্তরের কাছে থাকা দাউদের কন্ঠস্বর মিলে গেছে সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধির সঙ্গে কথা বলা স্বরের সঙ্গে। তবে তদন্ত এখানেই শেষ হচ্ছে না। কন্ঠস্বরের নমুনা আরও ভালও ভাবে খতিয়ে দেখতে চান তদন্তকারী কর্মকর্তারা। 

প্রসঙ্গত, ১৯৯৩ সালের ১২ মার্চ মুম্বই স্টক এক্সচেঞ্জে একটি ধারাবাহিক বোমা বিস্ফোরণে প্রায় ৩১৫ জন মারা যান। এই বিস্ফোরণের মাস্টার মাইন্ড দাউদ। প্রসঙ্গত, পাকিস্তানে একাধিক ঘাঁটি আছে দাউদ ইব্রাহিমের। পরিস্থিতি অনুসারে নিয়মিত জায়গা বদল করে এই মাফিয়া ডন। বিভিন্ন এজেন্সি থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, এই পরিসংখ্যান রয়েছে ভারতীয় গোয়েন্দাদের কাছে।